Monday, August 13, 2018

মোবাইল ফোনের  নতুন কলরেট ২ টাকা । মধ্যরাত থেকে চালু হচ্ছে

মোবাইল ফোনের নতুন কলরেট ২ টাকা । মধ্যরাত থেকে চালু হচ্ছে


মোবাইল ফোনের নতুন কলরেট নির্ধারণ করেছে সরকার। আজ সোমবার রাত ১২টা পেরুলেই এই কল রেট চালু হবে। নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, মোবাইল অপারেটরগুলো ৪৫ পয়সার নিচে কোনও কলরেট নির্ধারণ করতে পারবে না। এই কলরেট সর্বোচ্চ ২ টাকা পর্যন্ত হতে পারবে। এরইমধ্যে দেশের সব মোবাইল ফোন অপারেটরকে এই নির্দেশনা পাঠিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি। অপারেটরগুলো এই নির্দেশনা কার্যকরের উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানা গেছে।
বিটিআরসির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জহুরুল হক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, এখন থেকে আর মোবাইল ফোনে কথা বলার ক্ষেত্রে অফ নেট ও অন নেট সুবিধা থাকছে না। কলরেটের নতুন সীমা সর্বনিম্ন ৪৫ পয়সা। আর সর্বোচ্চ সীমা ২টাকা। তিনি জানান, ১৪ তারিখ থেকে নতুন কলরেট কার্যকরের কথা বলা হয়েছে।
সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ৪৫ পয়সা হলো নতুন কলরেটের ফ্লোর প্রাইস (ইউনিফায়েড ফ্লোর প্রাইস)। এই রেটের কমে কোনও মোবাইল নম্বরে কল করা যাবে না। তবে মোবাইল ফোন অপারেটররা তাদের পছন্দমতো রেট সাজিয়ে নতুন কলরেট গ্রাহকদের অফার করতে পারবে। কলরেটের সর্বোচ্চ সীমা হবে ২ টাকা, যা আগেও ছিল। কোনও অপারেটর গ্রাহকের কাছ থেকে প্রতি মিনিটের কলের জন্য ২ টাকার বেশি চার্জ করতে পারবে না।
বর্তমানে বিটিআরসির নির্ধারণ করে দেওয়া সর্বনিম্ন অননেট চার্জ প্রতি মিনিট ২৫ পয়সা ও অফনেট ৬৫ পয়সা। সর্বোচ্চ চার্জ প্রতি মিনিট ২ টাকা। মোবাইল ফোন অপারেটররা এই সীমার মধ্যে থেকে নিজেদের অপারেটরের চার্জ নির্ধারণ করেছে। ফলে একেক অপারেটরের চার্জ ছিল একেকরকম।
প্রসঙ্গত, দেশে দুই ধরনের কলরেট চালু আছে, অননেট ও অফনেট। অননেট হলো একই মোবাইল নেটওয়ার্কে কল করার (কথা বলার) পদ্ধতি এবং অফনেট কল হলো এক নেটওয়ার্ক থেকে অন্য নেটওয়ার্কে ফোন করা। নতুন নিয়মে এই অননেট ও অফনেটের কলরেট পদ্ধতি আর থাকছে না।
১৪ আগস্ট থেকে নতুন কলরেট চালুর কথা বলা হলেও একাধিক মোবাইল ফোন অপারেটরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলাপ করে জানা গেছে, বেশিরভাগই আজ সোমবার রাত ১২টার পরে (মঙ্গলবারের প্রথম প্রহরে) নতুন কলরেট কার্যকর করবে।
এদিকে নম্বর না বদলিয়ে অপারেটর পরিবর্তন সেবা বা এমএনপি চালুর আগেই অভিন্ন কলরেট চালুর একটি জোর দাবি ছিল টেলিকম সেক্টর থেকে। এজন্য জুলাই মাসের শুরুতে কলরেট ৪০ পয়সা প্রস্তাব করে অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। বিভিন্ন প্রক্রিয়া শেষে তা ৪৫ পয়সায় নির্ধারিত হয় যা সোমবার কার্যকরের নির্দেশনা পাঠায় বিটিআরসি।
গত ১ আগস্ট থেকে দেশে এমএনপি সেবা চালুর কথা থাকলেও কারিগরি প্রস্তুতির কারণে তা দুই মাস পেছানো হয়। নতুন তারিখ অনুযায়ী আগামী ১ অক্টোবর দেশে এমএনপি চালু হওয়ার কথা।

Tuesday, July 31, 2018

ওয়াই ফাই রাউটার কিনবেন ? তাহলে  আগে যা জানা দরকার

ওয়াই ফাই রাউটার কিনবেন ? তাহলে আগে যা জানা দরকার

ওয়াই ফাই রাউটার কেনার আগে যা জানা দরকার

বর্তমান সময়ে ইন্টারনেট মানুষের মৌলিক অধিকারে পরিণত হয়েছে। আগে বেশীরভাগ ব্যবহারকারী ডেস্কটপ কম্পিউটার থেকে ইন্টারনেট ব্যবহার করতেন। এখন ধীরে ধীরে ডেস্কটপ থেকে ল্যাপটপ কম্পিউটারের ব্যবহার বাড়তে থাকে। আজকাল মুঠোফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা হু হু করে বেড়ে চলেছে। সঙ্গে ইন্টারনেট টিভি, স্মার্টহোম যন্ত্রগুলো পরস্পরের সঙ্গে যুক্ত থাকছে তারহীন ইন্টারনেটের মাধ্যমেই। আর এই তারহীন ইন্টারনেটের জন্য যে যন্ত্রটি জরুরি, সেটা ওয়াই-ফাই রাউটার। বাসায় কিংবা অফিসে একটা ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করতে রাউটার লাগবেই। বাজারেও আছে নানা দামের নানা মানের রাউটার। কিন্তু কার জন্য কেমন রাউটার প্রয়োজন—এটা জানা দরকার।
কেন ওয়াই-ফাই রাউটারঃ
শুধু একটি মুঠোফোন বা ডিভাইসে ইন্টারনেট ব্যবহার করলে প্রয়োজন অনুযায়ী ইন্টারনেট প্যাকেজ চালু করে নেওয়া যেতে পারে। কিন্তু ইন্টারনেট যদি একাধিক যন্ত্রে ব্যবহার করতে হয় তবে আর এক প্যাকেজ দিয়ে ব্যবহার সম্ভব নয়। প্রথমত মুঠোফোন বা ডেস্কটপে যুক্ত ইন্টারনেট সংযোগটি অন্য যন্ত্রগুলোর সঙ্গে ভাগাভাগি করার সুযোগ নেই। আরেকটি কারণ, মুঠোফোনের ইন্টারনেট প্যাকেজ তুলনামূলক ব্যয়সাপেক্ষ। একই খরচের ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট কিংবা ওয়াইম্যাক্স সংযোগে কয়েক গুণ বেশি গতির এবং বেশি ডেটা ভলিউমের প্যাকেজ ব্যবহার করা সম্ভব।
কাজের ধরন বুঝে রাউটার কিনুনঃ
একটি ইন্টারনেট সংযোগ থেকে একাধিক ব্যবহারকারী এবং একাধিক মুঠোফোন ও কম্পিউটারে ব্যবহার করার উপায় হলো সে সংযোগের সঙ্গে একটি ওয়াই-ফাই রাউটার যুক্ত করে নেওয়া। বাজারে বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যের বিভিন্ন ধরনের রাউটার আছে। কাজের ধরন অনুয়ায়ী বেছে নিতে হবে আপনার রাউটার। অতি উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন সর্বাধুনিক প্রযুক্তির রাউটার যে কিনতেই হবে এমন নয়। বরং রাউটার কী ধরনের কাজের জন্য ব্যবহার করা হবে, তার ওপর নির্ভর করেই নির্বাচন করা উচিত।
মাথায় রাখুন রাউটারের ব্যান্ডঃ
সিঙ্গেল, ডুয়েল এবং ট্রাই ব্যান্ড রাউটার হয়ে থাকে। সহজভাবে বলতে গেলে যে কয়েকটি ব্যান্ড থাকে রাউটারে ওই সংখ্যক নেটওয়ার্ক পাওয়া যাবে। সিঙ্গেল ব্যান্ড রাউটারগুলোর ব্যবহার বেশি। এতে ২.৪ গিগাহার্টজের একটি নেটওয়ার্ক থাকে। ডুয়েল ব্যান্ডে ২.৪ গিগাহার্টজের পাশাপাশি ৫ গিগাহার্টজের আরও একটি নেটওয়ার্ক থাকে। ৫ গিগাহার্টজের নেটওয়ার্ক উচ্চগতিতে তথ্য আদান-প্রদান করতে পারে। কিন্তু এই উচ্চগতির কারণেই দেয়াল বা বড় কিছু অতিক্রম করে সিগন্যাল পাওয়া কষ্টসাধ্য হয়ে যায়।
ট্রাই-ব্যান্ডের রাউটারে একটি ২.৪ গিগাহার্টজের এবং দুটি ৫ গিগাহার্টজের নেটওয়ার্ক থাকে। একাধিক নেটওয়ার্ক থাকার উদ্দেশ্য হলো উচ্চগতির যন্ত্র এবং তুলনামূলক কম গতির যন্ত্রগুলো যেন কোনো ধরনের সমস্যা ছাড়া তথ্য আদান-প্রদান করতে পারে।
আপনি যদি ওয়্যারলেস নেটওয়ার্কের গতি নিয়ে ভাবনায় থাকেন এবং একই সঙ্গে রাউটার থেকে ১০টির বেশি যন্ত্রে ব্যবহার করতে চান, তবেই কেবল ট্রাই-ব্যান্ড রাউটার কিনতে পারেন। বাসা বা ছোট অফিসের সাধারণ কাজে ব্যবহারের জন্য ২.৪ গিগাহার্টজের রাউটারই যথেষ্ট।
ওয়্যারলেস মান জেনে নিনঃ
802.11 a, 802.11 b/g/n, 802.11 ac-এর মতো বেশ কয়েকটি ওয়্যারলেস মান রয়েছে। আপনার কম্পিউটারটি যদি গত কয়েক বছরের মধ্যে কেনা হয়ে থাকে তবে নিশ্চিতভাবেই ধরে নেওয়া যায় এটি 802.11n নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত হতে পারবে। প্রায় ছয় বছর ধরে এই নেটওয়ার্কই বেশি ব্যবহৃত হয়ে আসছে।
802.11 ac নেটওয়ার্ক স্ট্যান্ডার্ডটি সাম্প্রতিক সময়ে প্রকাশিত হয়ে থাকলেও সব যন্ত্রে এখনো রাউটারের এই মান সমর্থন করছে না। কিন্তু আপনি যদি আপনার যন্ত্রগুলো হালনাগাদ করার পরিকল্পনা করে থাকেন তবে 802.11 ac স্ট্যান্ডার্ডের রাউটার কিনতে পারেন। সাধারণত এই রাউটারগুলোতে আগের স্ট্যান্ডার্ডের ডিভাইস যুক্ত করার সুযোগও থাকে।
চাইলে বহনযোগ্য রাউটারঃ
সাধারণ রাউটারের পাশাপাশি বহনযোগ্য বা পোর্টেবল রাউটারও ব্যবহার করা যেতে পারে। গ্রামীণফোন, বাংলালিংক, রবির মতো মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটরভিত্তিক থ্রিজি অথবা কিউবি, বাংলালায়নের মতো ওয়াইম্যাক্স ইন্টারনেট সংযোগগুলোতে একই সঙ্গে একাধিক যন্ত্র যুক্ত করার জন্যও রাউটার ব্যবহার করা যেতে পারে।
বিভিন্ন ব্র্যান্ডের তৈরি থ্রিজি নেটওয়ার্ক সমর্থন করে এমন বিভিন্ন মডেলের পোর্টেবল রাউটার বাজারে রয়েছে। এই ধরনের রাউটারের সঙ্গে যেকোনো মোবাইলের সিমকার্ড ব্যবহার করে রাউটার সক্রিয় করা যায়। কোনো কোনো টেলিযোগাযোগ সংযোগদাতা প্রতিষ্ঠান আবার নিজেরাই এই ধরনের যন্ত্রগুলো তাদের গ্রাহকসেবা কেন্দ্রের মাধ্যমে বিক্রি করে থাকে।
পোর্টেবল রাউটারের মাধ্যমে ওয়াইম্যাক্স ইন্টারনেট ব্যবহার করতে চাইলে নির্দিষ্ট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান থেকেই এই রাউটারগুলো কিনতে হবে। আবার এক প্রতিষ্ঠানের রাউটার অন্য প্রতিষ্ঠানের সংযোগের জন্য কার্যকর নয়। সেটাও মাথায় রাখতে হবে।
পোর্টেবল রাউটারগুলো পূর্ণ চার্জে সাধারণত তিন-পাঁচ ঘণ্টা ব্যবহার করা যায়। চলার পথে ব্যবহার করার জন্য এই রাউটারগুলো বেশ কার্যকর। এখানে খেয়াল রাখতে হবে, যেসব স্থান থেকে ব্যবহার করা হচ্ছে সেটি নেটওয়ার্কের আওতাভুক্ত কি না।
আপনার রাউটারের আরো সুবিধা পেতে ভালো করে কয়েকটি বিষয় জেনে নিন। যেমন-
৩জি ৪জি মডেম সাপোর্টঃ
অনেক রাউটার আছে যেগুলো তে মডেম ব্যবহার করা যায়। সেসব রাউটারে ইউএসবি পোর্ট থাকে এবং ওয়ান পোর্ট ও থাকে যাতে ব্রডব্যান্ড এর লাইন ব্যবহার করা যায়। কিন্তু মনে রাখবেন মডেমটি অবশ্যই অটো কানেক্ট করার কাপাবিলিটি থাকতে হবে। সব রাউটার সব মডেম সাপোর্ট করে না। রাউটারের ওয়েবসাইটে মডেম কম্পাটিবিলিটি লিস্ট দেয়া আছে। যারা বাংলালায়ন আর কিউবি মডেম ব্যবহার করতে চান অটো কানেক্ট হয় এমন মডেম নিতে হবে ওদের কাছ থেকে। আপনি যদি সিওর না হয়ে থাকেন তাহলে কাস্টমার কেয়ারে ফোন করে জেনে নিবেন।
এডিএসএল সাপোর্টঃ
আমাদের দেশে বিটিসিএল টেলিফোন সেট দিয়ে ইন্টারনেট কানেকশন দিয়ে থাকেন। বিটিসিএল এর কানেকশন এর জন্য এডিএসএল রাউটার লাগবে।
ইউএসবি কানেকশনঃ
রাউটারে ইউএসবি কানেকশন থাকলে আপনি এফটিপি সার্ভার হোস্ট করতে পারবেন। কারন আপনি সহজেই ইউএসবি স্টোরেজ ডিভাইস কানেক্ট করতে পারবেন।
ক্লাউড সাপোর্টঃ
আপনি বাসার বাইরে থেকেও রাউটার কন্ট্রোল করতে পারবেন।
ভিপিএন সাপোর্টঃ
মনে করুন আপনার বাসা মিরপুরে। আপনার বাসায় প্রাইভেট আইপি তে আপনি ফাইল সার্ভার হোস্ট করেছেন এখন আপনি চাচ্ছেন আপনার সার্ভারটি আপনার বন্ধু গুলশান থেকে এক্সেস করুক। সাধারনত এটি সম্ভব না। কিন্তু ভিপিএন সাপোর্টেড রাউটার দিয়ে এই কাজটি করা সম্ভব।
পোর্টাবিলিটিঃ
কিছু রাউটার আছে যেগুলো মোবাইলের সিম ব্যবহার করা যায়। ডিভাইসে একটা ব্যটারি থাকে যেটা চার্জ দিয়ে বাসার বাইরে রাউটার ব্যবহার করা যায়।
রাউটার ব্যবহারে যা জানতে হবেঃ
* রাউটারের ওয়াই-ফাই সক্রিয় করার সময় ডিফল্ট নেটওয়ার্ক হিসেবে ওই রাউটারের নাম উল্লেখ থাকে এবং পাসওয়ার্ডও রাউটারে নিচের দিকে একটি স্টিকারে লেখা থাকে। প্রয়োজনে ব্যবহারের নির্দেশিকা দেখে পদ্ধতিটি জেনে নেওয়া যেতে পারে।
* প্রথমবার রাউটার সংযুক্ত করে ওয়্যারলেস নেটওয়ার্কের নাম পরিবর্তন করে নেওয়া উচিত। পাশাপাশি নেটওয়ার্কের পাসওয়ার্ডও ব্যবহার করা উচিত। পাসওয়ার্ড দেওয়া না থাকলে যে কেউই রাউটারে যুক্ত হতে পারবে। ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য এমন অবস্থা কখনোই রাখা উচিত নয়।
* রাউটারের পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে সেটি রিসেট বা পুনরায় নির্ধারণ করে নেওয়া যায়। সাধারণত রাউটারের পাশে একটি বোতাম চেপেই এই কাজটি করা যায়।
* রাউটার সাধারণত বাসার মাঝামাঝি স্থানে রাখা উচিত। এর ফলে অন্যান্য ঘর থেকে সহজে রাউটারের ওয়াই-ফাই সংযোগের সঙ্গে যুক্ত হওয়া যাবে।
* কত বড় জায়গায় ওয়াই-ফাই সংযোগ দিতে চান, তার ওপর নির্ভর করে রাউটার পছন্দ করুন।
* রাউটারে একই সঙ্গে একাধিক লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক সংযোগ যুক্ত করা হয়। অধিকসংখ্যক ল্যান সংযোগ যুক্ত করতে হলে রাউটার কেনার সময় সেটি দেখে নেওয়া উচিত।
তথ্যসূত্রঃ ইন্টারনেট

Thursday, July 26, 2018

Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab Job Circular 2018

Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab Job Circular 2018

Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab Job Circular – www.caab.gov.bd

Civil Aviation Authority of Bangladesh Offer Some New Vacancy at www.caab.gov.bd. Recruitment Notice of Civil Aviation Authority of Bangladesh also found at bdnewspaper.net. Educational Qualification for the Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab job circular written below this Post. Most of the government jobs, Bank jobs and Non govt job application completed by Online method by Official Website. You can also know how to apply Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab job circular in 2018.

Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab Job Circular 2018

Caab Job Circular – Download Application Form

Many people find government jobs such as Civil Aviation Authority of Bangladesh govt jobs. Now Civil Aviation Authority of Bangladesh published new jobs circular. Before apply Civil Aviation Authority of Bangladesh govt jobs through Online keep below this short Information.
Application Published Date : 26 July 2018
Job Type : Government Jobs
Job Position: As per circular
Source : kaler kantha
Age Limit: As per circular
Job Nature : Full Time
Official website : www.caab.gov.bd
Online Application Start Date : See circular below
Application Fee : 1000 Taka
Application Last Date : 26 August 2018
Total Post : 10
Job Location: Dhaka
Salary : 72,150 Taka
For more information see below this original circular
Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab Job Circular 2018

How to apply Caab job circular

Are you ready for apply this Civil Aviation Authority of Bangladesh govt jobs circular using your Online www.caab.gov.bd. Let`s follow this instruction and complete your Civil Aviation Authority of Bangladesh Post Office application registration.

Caab Exam Date, Result and Admit Card Notice

Many Candidate search for Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab job exam date, admit card download notice etc. on Google. We are able to provide for your all information about this circular by our website. When online registration will be complete candidate can be able to download there admit card through Civil Aviation Authority of Bangladesh Board official website.
To get Daily government and Non Government Jobs, Bank jobs circular Continue with our website and share our post to your time line. You can also able to concretion with us on our Facebook Fan page. For Next Updates about Civil Aviation Authority of Bangladesh Caab Job circular Vacancy Notice, Exam Result or Admit card Download stay with us. My Website or comment below for further information. You can also get more notice about Civil Aviation Authority of Bangladesh to there official website address at www.caab.gov.bd
Stay connected to our page and group to get             daily Education and job News on Facebook

Health Ministry Job Circular  2018

Health Ministry Job Circular 2018

Health Ministry Job Circular In 2018 – www.mohfw.gov.bd

Health Ministry Offer Some New Vacancy at www.mohfw.gov.bd. Recruitment Notice of Save The Children also found at     bdnewspaper.net Educational Qualification for the Health Ministry Job Circular written below this Post. Most of the government jobs, Bank jobs and Non govt job application completed by Online method. You can also know how to apply Health Ministry government job circular in 2018.
Health Ministry Job Circular In 2018

Many people find government jobs such as Health Ministry government jobs. Now Save The Children published new jobs circular. Before apply Health Ministry government through Online keep below this short Information.
Application Published Date : 26 July 2018
Job Type : Government Jobs
Educational Qualification: see the circular
Source : ittefaq
Official website :  www.mohfw.gov.bd
Applications Starts: Starts on
Applications Deadline: 14 August 2018.
Total Posts: 12
Age: Minimum 18 to 30 years old from (25-07-2018)
Salary: see the circular
Application Fee : see the circular
Stay connected to our page and group to get             daily Education and job News on Facebook
Health Ministry Job Circular In 2018
Application Form Download:

How to apply Health Ministry job circular

Are you ready for apply this Health Ministry government job circular using your Online www.mohfw.gov.bd. Let`s follow this instruction and complete your Health Ministry Post Office application registration.

Health Ministry Exam Date, Result and Admit Card Notice

Many Candidate search for Health Ministry job exam date, admit card download notice etc on Google. We are able to provide for your all information about this circular by our website. When, When online registration will be complete candidate can be able to download there admit card through Health Ministry Board official website.
To get Daily government and Non Government, Bank job circular Continue with our website and share our post to your time line. You can also able to concretion with us on our Facebook Fan page. For Next Updates about Health Ministry Job circular Vacancy Notice, Exam Result or Admit card Download stay with us. My Website or comment below for further information. You can also get more notice about Health Ministry to there official website address at www.mohfw.gov.bd
Stay connected to our page and group to get             daily Education and job News on Facebook

Thursday, July 19, 2018

এইচএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ৬৬.৬৪%  জিপিএ-৫ কমেছে

এইচএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ৬৬.৬৪% জিপিএ-৫ কমেছে

এইচএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ৬৬.৬৪%  জিপিএ-৫ কমেছে

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় এবার পাসের হার ও ফলাফলের সর্বোচ্চ সূচক জিপিএ-৫ উভয় বিষয়ে গতবারের চেয়ে খারাপ ফল হয়েছে।
এবার ১০টি শিক্ষা বোর্ডে গড় পাসের হার ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ, যা গতবারের চেয়ে ২ দশমিক ২৭ শতাংশ কম। গতবার গড় পাসের হার ছিল ৬৮ দশমিক ৯১ শতাংশ। এ বছর ১০ বোর্ডে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল ১২ লাখ ৮৮ হাজার ৭৫৭ জন। পাস করেছেন ৮ লাখ ৫৮ হাজার ৮০১ জন।
এবার জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২৯ হাজার ২৬২ জন। গতবার পেয়েছিলেন ৩৭ হাজার ৯৬৯ জন। অর্থাৎ গতবারের চেয়ে এবার জিপিএ-৫ কমেছে ৮ হাজার ৭০৭ জন।
শতভাগ পাস করা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যাও এবার কমেছে। এবার ৪০০ প্রতিষ্ঠান থেকে সবাই পাস করেছেন। গতবার এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ছিল ৫৩২। তবে কেউ পাস করেনি—এমন প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা কমেছে। গতবার ৭২টি প্রতিষ্ঠান থেকে কেউ পাস করেনি। এবার এমন প্রতিষ্ঠান ৫৫টি।
 এবার এইচএসসি পরীক্ষায় পাসের হার ও জিপিএ-৫ কমেছে
আলাদাভাবে আটটি সাধারণ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে এইচএসসি পরীক্ষাতেও পাসের হার ও জিপিএ-৫ কমেছে। শুধু এইচএসসিতে পাসের হার ৬৪ দশমিক ৫৫ শতাংশ। গতবার ছিল ৬৬ দশমিক ৮৪ শতাংশ। অর্থাৎ কমেছে ২ দশমিক ২৯ শতাংশ। এবার জিপিএ-৫ পেয়েছেন ২৫ হাজার ৫৬২ জন। গতবার পেয়েছিলেন ৩৩ হাজার ২৪২ জন। কমেছে ৭ হাজার ৬৮০ জন। আট বোর্ডে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১০ লাখ ৭২ হাজার ২৮ জন। পাস করছেন ৬ লাখ ৯১ হাজার ৯৫৮ জন।
আজ বৃহস্পতিবার সকালে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ফলাফলের অনুলিপি তুলে দেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ ও শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানরা। সকাল ১০টার পর গণভবনে এক অনুষ্ঠানে তাঁরা ফলাফলের এই অনুলিপি তুলে দেন।

শিক্ষামন্ত্রী বেলা একটায় সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত ফলাফল জানাবেন।

গত ২ এপ্রিল এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হয়। তত্ত্বীয় পরীক্ষা চলে গত ১৩ মে পর্যন্ত। আর ১৪ থেকে ২৩ মের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয় ব্যবহারিক পরীক্ষা। এ বছর মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৩ লাখ ১১ হাজার ৪৫৭ জন শিক্ষার্থী। এর মধ্যে ৬ লাখ ৯২ হাজার ৭৩০ জন ছাত্র ও ৬ লাখ ১৮ হাজার ৭২৭ জন ছাত্রী।

পরীক্ষার্থীরা শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইট এবং সংশ্লিষ্ট বোর্ডের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল সংগ্রহ করতে পারবে। এমনকি যেকোনো মোবাইল অপারেটরে খুদে বার্তার মাধ্যমে ফল জানা যাবে। প্রথম আলো 
 বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের ঘোষণা দিয়েছে শাওমি

বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের ঘোষণা দিয়েছে শাওমি

 বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রমের ঘোষণা দিয়েছে শাওমি
শাওমির ভারতীয় কার্যক্রমের প্রধান মানু কুমার জেইন। ছবি: সংগৃহীত।
দেশের বাজারে এস২ মডেলের স্মার্টফোনের ঘোষণা দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করল শাওমি। গতকাল মঙ্গলবার বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে চীনের প্রযুক্তিপণ্য নির্মাতা প্রতিষ্ঠান শাওমি তাদের কার্যক্রমের ঘোষণা দেয়। এত দিন দেশে পরিবেশক প্রতিষ্ঠান দিয়ে কার্যক্রম চালাচ্ছিল প্রতিষ্ঠানটি। এবার বাংলাদেশে নিজস্ব অফিস খোলার এবং ধাপে ধাপে বাংলাদেশে স্মার্টফোন উৎপাদনের দিকে যাওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। শাওমির ভারতীয় কার্যক্রমের প্রধান মানু কুমার জেইন প্রথম আলোকে এ তথ্য জানান।
মানু বলেন, ‘বাংলাদেশে শাওমির আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হলো। কয়েক প্রান্তিকজুড়ে স্মার্টফোনসহ নানা ধরনের প্রযুক্তিপণ্য বিপণন করা হবে। শুরু হলো এক নতুন অধ্যায়। বাংলাদেশের বাজার আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ। তাই আমরা বিশেষ নজরে রেখেই দেশের গ্রাহকদের জন্য সব ধরনের পণ্য, সেবা ও অন্যান্য সব সুবিধা নিয়ে আসছি। এরপর ধীরে ধীরে বাজার বুঝে স্মার্টফোন উৎপাদনসহ অন্যান্য প্রযুক্তিপণ্য উন্মুক্ত করা হবে। নতুন কার্যক্রম শুরুর ফলে প্রতিযোগিতামূলক দামে ওয়ারেন্টিসহ স্মার্টফোন পাবেন বাংলাদেশি ক্রেতারা। আমাদের লক্ষ্য, দেশের সব গ্রাহক যেন সাশ্রয়ী দামে উন্নত ফিচারের স্মার্টফোন ব্যবহার করতে পারেন, সেদিকে। এত দিন দেশে সোলার ইলেকট্রো বাংলাদেশ লিমিটেডের (এসআইবিএল) মাধ্যমে ব্যবসা করে এলেও এখন থেকে তাদের সঙ্গে সমন্বয় করে সরাসরি শাওমি ব্যবসা করবে।’
স্মার্টফোনের দাম সম্পর্কে মানু জানান, ভারত ও চীনের তুলনায় বাংলাদেশে ট্যাক্স তুলনামূলকভাবে বেশি। তাই গ্রে চ্যানেলের দিকে ক্রেতারা ঝুঁকে পড়েন। এদিকে নজর দিলে স্মার্টফোনের দাম আরও কমবে। এত দিন শাওমি লোকাল ডিস্ট্রিবিউটরের মাধ্যমে স্মার্টফোন বিক্রি করত বলে দাম কিছু বেশি পড়ত। এখন থেকে আন্তর্জাতিক বাজারের মতো দামে পাওয়া যাবে শাওমির সব ডিভাইস।
বাংলাদেশে স্মার্টফোন উৎপাদন সম্পর্কে মানু বলেন, ‘কাজটি করতে সময়ের প্রয়োজন। ভারতের কার্যক্রম শুরুর কয়েক বছর পরে উৎপাদন পর্যায়ে যেতে পেরেছি। বাংলাদেশে কেবল কার্যক্রম শুরু হচ্ছে। আমাদের ইচ্ছা আছে বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিয়ে কাজ করার। বাংলাদেশে স্থানীয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে শাওমিকে গড়ে তোলা হবে। এখানকার জনবল নিয়োগ হবে। এ ছাড়া স্থানীয়ভাবে গবেষণা করে বিভিন্ন অ্যাপ কাস্টোমাইজ করা হবে। বাংলাদেশের ই-কমার্স খাতটিকেও গুরুত্ব দেওয়া হবে।’
শাওমির নতুন স্মার্টফোন সম্পর্কে শাওমির কর্মকর্তা জানান, সেলফির জন্য বিশেষভাবে তৈরি এই ফোনে রয়েছে এআই সুবিধা। সামনে ১৬ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে, যা দিনের আলো বিশ্লেষণ করে ছবি তুলতে সক্ষম। ফোনটিতে রয়েছে পেছনে ডুয়েল ক্যামেরা। এর একটি ১২ এবং অন্যটি ৫ মেগাপিক্সেলের। রয়েছে পোর্ট্রেট মোড এবং এআই বিউটিফাই সমর্থন। রেডমি এস২ ফোনের ৫ দশমিক ৯৯ ইঞ্চির ফুল স্ক্রিন ডিসপ্লে। কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন ৬২৫ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। ৩ জিবি র‍্যাম ও ৩২ জিবি রম এবং ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি রমের দুটি সংস্করণে বাজারে ছাড়ছে ফোনটি। এর দাম যথাক্রমে ১৪ হাজার ৯৯৯ টাকা এবং ১৭ হাজার ৯৯৯ টাকা।
২৬ জুলাই থেকে অনলাইন স্টোর দারাজে পাওয়া যাবে ফোনটি। ‘রেডমি এস২’ মডেলের ফোনটি আপাতত অনলাইন স্টোরে পাওয়া যাবে। তবে সপ্তাহ দুয়েকের মধ্যে অফলাইনেও পাওয়া যাবে। ভিসা কার্ডসহ কয়েকটি কার্ডের মাধ্যমে ১০ শতাংশ ছাড়ে কেনা যাবে। এ ছাড়া সুদবিহীন ইএমআই সুবিধাতেও কেনা যাবে ফোনটি। ফোনগুলোতে এক বছরের ওয়ারেন্টি সেবা পাবেন গ্রাহকেরা। প্রথম আলো
ঢাবিতে ১ম বর্ষে ভর্তির আবেদন শুরু ৩১ জুলাই

ঢাবিতে ১ম বর্ষে ভর্তির আবেদন শুরু ৩১ জুলাই


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ স্নাতক সম্মান শ্রেণিতে অনলাইনের মাধ্যমে প্রার্থীদের ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া আগামী ৩১ জুলাই মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টা থেকে শুরু হবে।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান-এর সভাপতিত্বে ১ম বর্ষ স্নাতক সম্মান শ্রেণিতে ভর্তি বিষয়ক সাধারণ ভর্তি কমিটির অনুষ্ঠিত সভায় আজ এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এই অনলাইন আবেদন আগামী ২৬ আগস্ট রোববার রাত ১২টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে।

নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনের সভা কক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. নাসরীন আহমাদ, সহ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ সামাদ, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. কামাল উদ্দীন, অনলাইন ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. হাসিবুর রশীদ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান, বিভিন্ন ইনস্টিটিউটের পরিচালক, ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার, প্রক্টর এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।
সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ক-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার, খ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ২১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার, গ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ১৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার, ঘ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা ১২ অক্টোবর শুক্রবার, চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা (সাধারণ জ্ঞান) ১৫ সেপ্টেম্বর শনিবার এবং চ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা (অঙ্কন) ২২ সেপ্টেম্বর শনিবার অনুষ্ঠিত হবে।
সভায় জানানো হয়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট ও বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়ে দেওয়া হবে।

dollartotaka.com | Trusted currency  buy,   sell and wallet exchanger in   Bangladesh.